মঙ্গবার, ১৬ জলাই ২০২৪, সময় : ১০:৩৮ pm

সংবাদ শিরোনাম ::
অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা সরকারি চাকরিতে কোটা আন্দোলন : সারাদেশে সংঘর্ষ, নিহত ৫ বিভাগীয় পর্যায়ে রাজশাহীতে সংবর্ধিত হলেন পাঁচ শ্রেষ্ঠ জয়িতা নাচোল উপজেলা হাসপাতালে ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা ছাগলের পিপিআর ভ্যাকসিন ক্রয়ে ৩০ কোটি টাকা লোপাট কোটাবিরোধী আন্দোলকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ৮০ বাগমারায় এনজিকর্মীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণে ৩ জন গ্রেফতার আরইউজের সদস্য হতে আগ্রহীদের কাছ থেকে আবেদন আহ্বান ছাত্রলীগের তিন নেতার পদত্যাগ, ঢাবি ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ চাকরিতে কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ের পূর্ণাঙ্গ কপি প্রকাশ নাচোলে সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত কোটা বিরোধী আন্দোলনে রাবি শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ তানোরে কামারগাঁ ইউপিতে উপনির্বাচনে চেয়ারম্যানপদে ৩ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল একপাক্ষিক কোটা কিংবা কোটাহীনতা নয় : সাম্যের বাংলাদেশ প্রত্যাশা করি লোকসান কাটিয়ে ২.৯৮ কোটি টাকা নীট মুনাফা অর্জন করেছে রাকাব সর্বজনীন পেনশন ও সরকারি চাকরির কোটা আন্দোলনে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সংসদ নির্বাচনে একই আসনে লড়ছেন বাংলাদেশি প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী গ্রামীণফোনকে বিটিআরসির শোকজ, হতে পারে জরিমানা ‘কাফনের কাপড়’ পরে আমরণ অনশনে রামেবিকের নার্সিং শিক্ষার্থীরা মোহনপুরে দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিকে নিয়ে পালানোর সময় চালকসহ দুইজন আটক
তানোরে শিক্ষক পরিবারের বিরুদ্ধে সরকারি গাছকাটার অভিযোগ

তানোরে শিক্ষক পরিবারের বিরুদ্ধে সরকারি গাছকাটার অভিযোগ

মো. মমিনুল ইসলাম মুন, বরেন্দ্র অঞ্চল প্রতিবেদক :
রাজশাহীর তানোরে সাবেক এক প্রভাষক পরিবারের বিরুদ্ধে দু’দফায় অবৈধভাবে সরকারি রাস্তার গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ৩ জুলাই বুধবার এলাকাবাসির পক্ষে আসলাম উদ্দিন মিয়া বাদি হয়ে তানোর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

তানোর পৌরসভার বুরুজ মহল্লার আলহাজ্ব সৈয়দ আলী মিয়ার পুত্র ও তানোর সরকারি এ.কে সরকার ডিগ্রী কলেজের সাবেক প্রভাষক সোহরাব আলী মিয়াকে প্রধান করে মোট ৯ জনকে আসামি করা হয়েছে। স্থানীয়রা এই ঘটনাকে গাছ খেকো প্রভাষকের কান্ড বলে অভিহিত করেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক বাসিন্দা বলেন, এরআগেও সোহরাব আলী মিয়া রহিমাডাঙা মৌজায় সরকারি খাসপুকুর ভরাট করেছে। আবার কারিগরি কলেজ নির্মাণ করে রাতারাতি সেই কলেজ গায়েব করে কলেজের জায়গায় ধানচাষ করছে। তারা এবিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদুক) হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, রাজশাহী জেলার তানোর পৌরসভার অন্তর্গত ৮ নম্বর ওয়ার্ডের জেএল নম্বর ১৩১, মৌজা- বুরুজ, আরএস দাগ নম্বর ৩৮০। সরকারি রাস্তার নকশার প্রকৃত স্থান পরিবর্তন করে নিজের স্বার্থে অন্যপাশ দিয়ে ২০ ফিট বিশিষ্ট রাস্তা নির্মাণ করেছে। যার দু’পাশে মেহগনি, ইউকালেক্টর ও তালগাছ ছিল। যাহার আনুমানিক মূল্য দুই লক্ষ টাকা। আরও সময় পেলে উক্ত গাছগুলি আরো মূল্যবান হতো। যাহা ১ নম্বর বাদীর পিতা তার নিজ সীমানায় রোপণ করেন এবং স্থানীয় জনগন কর্তৃক রোপিত ছিল।।বর্তমানে উক্ত বিবাদীগণ রাজনৈতিক পরিচয়ের প্রভাবশালী হওয়ায় প্রভাষক সোহরাব আলীর নির্দেশে এবং লাইসেন্স বিহীন সার্ভেয়ার ৮ নম্বর বিবাদী নাসির উদ্দিন (ভাদু)’র যোগসাজশে পরিকল্পিতভাবে দু’দফায় সরকারি রাস্তার মূল্যবান প্রায় ১৪টি তাজাগাছ কর্তন করা হয়েছে।

যাহা সম্পূর্ণ বে-আইনী ও অপরাধমূলক কাজ। উল্লেখ্য, উক্ত রাস্তার পার্শ্বে বাদীর জমি থাকায় দীর্ঘ প্রায় ৩৫ বছর যাবৎ উক্ত রাস্তা ভোগদখল করিয়া আসিতেছে। বর্তমানে তারা উক্ত রাস্তার পার্শ্বে অন্য কাউকে যাতায়াত করতে দিবে না মর্মে ভীতি প্রদর্শন করিতেছে। তারা রাজনৈতিক পরিচয়ের প্রভাবশালী দাঙ্গাবাজ হওয়ার কারণে তাদের বিরুদ্ধে নাম উল্লেখপূর্বক কেহ অভিযোগ করার সাহস পাই না। এদিকে, এসব গাছ নিধনের খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসির মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে, উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

এঘটনায় বিবাদমান দু’পক্ষের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয়রা ঘটনাটি সরেজমিন তদন্তপূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছেন।

এবিষয়ে সাবেক প্রভাষক সোহরাব আলী মিয়া ও ওহাব হোসেন লালু মিয়া বলেন, রাস্তার কোন গাছ কাটা হয়নি। আসলাম উদ্দিন জায়গা জমি মাপার জন্য আমিন এনেছিল। মাপার পর তার জমির সামনের পজিশনটি আমাদের পড়ে। মুলত একারনে সে আমাদের নামে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে। সে একজন প্রতারক। আমাদের নিজস্ব জায়গার উপরে গাছ ছিল সেগুলো কাটা হয়েছে।

এবিষয়ে আসলাম উদ্দিন মিয়া বলেন, প্রায় ৩-৪ মাস আগে তারা কিছু গাছ কাটে। ওই সময় তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয় তানোর পৌর মেয়রকে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দিয়েছিলেন। কিন্তু পৌর মেয়র ৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র আরব আলীর জন্য কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। বাধ্য হয়ে ৩ জুলাই বুধবার তানোর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

এবিষয়ে ৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র আরব আলী জানান, রাস্তাটি সোহরাব ও ওহাব হোসেন লালু মিয়াদের নিজস্ব জায়গা। তারা রাস্তা করার জন্য জায়গা ছেড়ে দিয়েছে এটাই তো অনেক। যে রাস্তার গাছ কেটেছে সে জায়গা নাকি খাস জানতে চাইলে তিনি জানান এটা আমার জানা নেয়, তবে শুনেছি কিছু খাস থাকতে পারে।

এবিষয়ে তানোর পৌর মেয়র ইমরুল হক জানান, অফিসে গিয়ে ফাইল দেখে এবিষয়ে বলতে পারবেন বলে এড়িয়ে গেছেন।

এব্যাপারে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রহিম বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রা/অ

স্যোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

ads




© All rights reserved © 2021 ajkertanore.com
Developed by- .:: SHUMANBD ::.