সমবার, ২০ মে ২০২৪, সময় : ১২:২০ am

সংবাদ শিরোনাম ::
আইপিএলের প্লেø-অফে প্রতিপক্ষ হিসেবে যাদের পাচ্ছে কলকাতা ও বেঙ্গালুরু ভিলেন ‘মিশা-ডিপজল দুজনেই মূর্খ’: নিপুণ কর্মঅধ্যায় তাঁকে অমরত্ব দিয়েছে : দেবব্রত চক্রবর্তী বিষ্ণু ঝিনাইদহ-৪ আসনের সাংসদকে খুঁজে পেতে ডিবিতে মেয়ে ডরিন আসাম রাজ্যের শিলচরের ভাষাশহিদদের রাজশাহীতে স্মরণ চৌদ্দপুরুষের জন্য দেশের টাকা লুটে নিচ্ছে ক্ষমতাসীনরা : রিজভী তানোরে বাংলা টিভির ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত তানোরে দ্বিতীয় বারেরমত নির্বাচিত চেয়ারম্যান ময়নাকে গণসংবর্ধনা তালবীজ রোপণ প্রকল্পেও দুর্নীতির থাবা : সর্বাগ্রে দরকার সুশাসন দেশে-বিদেশে চোরাচালানে ঢাল হয়ে উঠছে কুরিয়ার সার্ভিস চারঘাটে বিএমডিএর রোপিত ২৬ হাজার তালগাছ গেল কই? পান চাষিদের নিয়ে ৯ দিনব্যাপি প্রশিক্ষণের উদ্বোধনে প্রতিমন্ত্রী দারা জেলা পরিষদের উদ্যোগে রাজশাহীতে নির্মিত হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার অফিসের তালা ভেঙ্গে প্রধান শিক্ষকের চেয়ার দখল, লাপাত্তা সহকারি শিক্ষক রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন ঢাকায় দেখা মিলেছে, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার রাজশাহীতে কৃষিমন্ত্রী আব্দুস শহীদ এমপি : কৃষক বাঁচলে, দেশ বাঁচবে নাচোলে শেখ হাসিনার প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপিত গোদাগাড়ীতে পুলিশের অভিযানের ফেনসিডিলসহ ২ যুবক আটক
রংপুরে তীব্র গরমে পাঁচ দিনে ২২ জনের মৃত্যু

রংপুরে তীব্র গরমে পাঁচ দিনে ২২ জনের মৃত্যু

ডেস্ক রির্পোট :
তীব্র গরমে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে রংপুর নগরীসহ বিভাগের আট জেলার জনজীবন। রোদের তাপে হিট স্ট্রোক, ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগবালাই ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। উল্লেখযোগ্য হারে স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ছে।

বিভাগের একমাত্র বিশেষায়িত চিকিৎসাকেন্দ্র রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে তিল ধারণের জায়গা নেই রোগীদের। ওয়ার্ডের শয্যা তো দূরের কথা জায়গা নেই মেঝেতেও। গত পাঁচ দিনে ‘স্ট্রোকজনিত কারণে’ হাসপাতালে ভর্তি ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী ওয়ার্ড মাস্টার ইউনুস খান। তিনি জানান, প্রতিদিন রংপুরসহ আশপাশের জেলা থেকে ৮ থেকে ১০ জন স্ট্রোকজনিত রোগী চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। এর মধ্যে গত পাঁচ দিনে ২২ জন মারা গেছেন। ‘স্ট্রোকজনিত কারণে’ তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন চিকিৎসক।

এছাড়াও বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখা গেছে, কার্ডিওলজি ও মেডিসিন বিভাগে রোগী সবচেয়ে বেশি। ওয়ার্ডগুলোতে তিল ধারণের জায়গা নেই। এর মধ্যে স্ট্রোকজনিত রোগী বেশি।

এদিকে মেডিসিন ওয়ার্ডের বেশিরভাগ সিলিং ফ্যান নষ্ট। যেগুলো সচল আছে সেগুলোও ভালো মতো ঘোরে না। একে তো রোগের যন্ত্রণা তার ওপর এমন গরমে রোগীদের দুর্ভোগের শেষ নেই। সূত্র : যুগান্তর

স্যোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

ads




© All rights reserved © 2021 ajkertanore.com
Developed by- .:: SHUMANBD ::.