মঙ্গবার, ২১ মে ২০২৪, সময় : ০৪:২৫ am

সংবাদ শিরোনাম ::
গোদাগাড়ীতে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা তানোরে দৌড়ে রাস্তা পার হতে গিয়ে ট্রাকের চাপায় শিশুর মৃত্যু রাত পোহালেই বাগমারা উপজেলা নির্বাচন আইপিএলের প্লেø-অফে প্রতিপক্ষ হিসেবে যাদের পাচ্ছে কলকাতা ও বেঙ্গালুরু ভিলেন ‘মিশা-ডিপজল দুজনেই মূর্খ’: নিপুণ কর্মঅধ্যায় তাঁকে অমরত্ব দিয়েছে : দেবব্রত চক্রবর্তী বিষ্ণু ঝিনাইদহ-৪ আসনের সাংসদকে খুঁজে পেতে ডিবিতে মেয়ে ডরিন আসাম রাজ্যের শিলচরের ভাষাশহিদদের রাজশাহীতে স্মরণ চৌদ্দপুরুষের জন্য দেশের টাকা লুটে নিচ্ছে ক্ষমতাসীনরা : রিজভী তানোরে বাংলা টিভির ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত তানোরে দ্বিতীয় বারেরমত নির্বাচিত চেয়ারম্যান ময়নাকে গণসংবর্ধনা তালবীজ রোপণ প্রকল্পেও দুর্নীতির থাবা : সর্বাগ্রে দরকার সুশাসন দেশে-বিদেশে চোরাচালানে ঢাল হয়ে উঠছে কুরিয়ার সার্ভিস চারঘাটে বিএমডিএর রোপিত ২৬ হাজার তালগাছ গেল কই? পান চাষিদের নিয়ে ৯ দিনব্যাপি প্রশিক্ষণের উদ্বোধনে প্রতিমন্ত্রী দারা জেলা পরিষদের উদ্যোগে রাজশাহীতে নির্মিত হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার অফিসের তালা ভেঙ্গে প্রধান শিক্ষকের চেয়ার দখল, লাপাত্তা সহকারি শিক্ষক রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন ঢাকায় দেখা মিলেছে, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার
আমার সঙ্গে হিন্দু কার্ড খেলতে যাবেন না : মমতা

আমার সঙ্গে হিন্দু কার্ড খেলতে যাবেন না : মমতা

জমি আন্দোলনের ভূমি নন্দীগ্রাম থেকেই এবার জিতে তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই তৃণমূল প্রার্থী তালিকায় নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম জ্বলজ্বল করছে।

ভাবনীপুর ছেড়ে নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে লড়াই করায় বিজেপি তাকে ‘বহিরাগত’ বলে কটাক্ষ করছে। এ প্রসঙ্গে মমতা বলেছেন, ‘কেউ কেউ বলে বেরাচ্ছে, আমি নাকি বাইরের লোক। আরে আমি তো বাংলার লোক। নিজেরা দিল্লি-রাজস্থানের লোকেদের নিয়ে আসছে। আর আমি কলকাতা থেকে এখানে দাঁড়াচ্ছি বলেই দোষ? আমি বহিরাগত হলে মুখ্যমন্ত্রী হতে পারতাম? যারা হিন্দু-মুসলিম করছেন তাদের আমি বলে রাখি। আমিও হিন্দু ঘরের মেয়ে। আমার সঙ্গে হিন্দু কার্ড খেলতে যাবেন না।’

মঙ্গলবার নন্দীগ্রামে প্রথম কর্মিসভায় তৃণমূল নেত্রী মমতা এসব কথা বলেন। তিনি তার বক্তব্যে একাধিকবার বললেন, ‘ভুলতে পারি সবার নাম, ভুলবো নাকো নন্দীগ্রাম’।

সিঙ্গুর ও নন্দীগ্রাম- একদিকে জমি আন্দোলনের ধাত্রীভূমি, অন্যদিকে মমতার রাজনৈতিক উত্থানের অন্যতম পীঠস্থান। তৃণমূল সুপ্রিমো এদিন জানান, তিনি ভেবেইছিলেন যে এবার হয় সিঙ্গুর অথবা নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে দাঁড়াবেন। তবে, কেন নন্দীগ্রামকেই তিনি বেছে নিলেন তাও সাফ জানালেন এদিনের কর্মীসভায়।কী বলেছেন মমতা?

নিজের ভাষণের শুরুতেই এদিন জমি আন্দোলনের দিনগুলোর স্মৃতি উস্কে দেন তৃণমূল নেত্রী। তুলে ধরেন সেদিনের কঠিন লড়াইয়ের কথা। বলেন, ‘আমি শেষভার যখন নন্দীগ্রামে এসেছিলাম তখন এখানকার বিধায়ক দল ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। বিধায়কপদ খালি ছিল। তখন আমি আপনাদের থেকে জানতে চাই যে, নন্দীগ্রামে যদি আমি দাঁড়াই তাহলে কেমন হবে? তখন আপনাদের সাহস-উন্মাদনা দেখে আমি নন্দীগ্রামের দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলি। মনে রাখবেন, ভুলতে পারি সবার নাম ভুলবো নাকো নন্দীগ্রাম।’

এই প্রসঙ্গেই সিঙ্গুরে আন্দোলনের প্রসঙ্গ টানেন মমতা। বলেন, ‘সিঙ্গুর ও নন্দীগ্রামকে আমি যুক্ত করে দিয়েছিলাম। আমার ইচ্ছা ছিল সিঙ্গুর ও নন্দীগ্রামের মধ্যে যে কোনও একটা সিটে লড়াই করব। শেষ পর্যন্ত নন্দীগ্রামকেই বেছে নিয়েছি।’

পুরনো স্মৃতিচারণ করে মমতা বলেন, ‘ চণ্ডিপুর থেকে নন্দীগ্রাম এসেছিলাম। কীভাবে তখন মানুষের ওপর অত্যাচার করা হয় তখন দেখেছিলাম। তার পর গোটা বাংলা জুডে আন্দোলন করেছি। সেই সময়ে তাহের, সুফিয়ানরা ছিল। ভয়ে অনেকে সেই সময়ে বের হয়নি। তিনি বলেন, ‘যদি মনে করেন আপনাদের ঘরের মেয়ে। তাহলে আমাকে বলবেন তবেই আমি মনোনয়ন জমা দিতে যাব।’

মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরে নন্দীগ্রামই যে আগামী দিনে বাংলার মডেল আসন হতে চলেছে বলে ইঙ্গিত দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। nS

স্যোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

ads




© All rights reserved © 2021 ajkertanore.com
Developed by- .:: SHUMANBD ::.