বৃহস্পতিবর, ৩০ মে ২০২৪, সময় : ০৯:৪০ pm

সংবাদ শিরোনাম ::
নগরীতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণ বন্ধ, জড়িত ছাত্রলীগের ৩ গ্রুপ তানোরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের দায়ে বৃদ্ধ গ্রেপ্তার নাচোলে নিরাপদ ফসল উৎপাদন মাঠ দিবস ও পুরস্কার প্রদান মোহনপুরে বকুল আর পবায় ডাবলুকে চেয়ারম্যান ঘোষণা মোহনপুরে সেই নির্যাতিত হাবিবার নারী ভাইস-চেয়ারম্যানপদে বাজিমাত ‘কোথাও নির্বাচনে সহিংসতার চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা’ পবায় সীল মারা ব্যালট নিয়ে বুথের মধ্যেই ছাত্রলীগ নেতার সেলফি! বাগমারার গোবিন্দপাড়া ইউপির উন্মক্ত বাজেট ঘোষণা বাগমারায় ঠিকাদারের ওপর হামলাকারিদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন রাজশাহীতে ২৩ জন উপজেলা চেয়ারম্যান শপথ নিলেন আজ মঙ্গলবার মোহনপুরে চেয়ারম্যানপ্রার্থী বকুলের নির্বাচনী ইশতেহার ঈদুল আজহা উপলক্ষে এবার চলবে ২০টি বিশেষ ট্রেন সাবেক আইজিপি বেনজীর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের দুদকে তলব নাচোলে দুদকের বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকার আহবান নতুনধারার নগরীতে চাঁদার দাবিতে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় ৪ নেতার ম্যুরাল নির্মাণ কাজ বন্ধ রিমাল তাণ্ডবে বিদ্যুৎ বিঘ্নিত : ১৫ হাজার মোবাইল টাওয়ার অচল দশজনের প্রাণ কেড়ে নিলো ‘রিমাল’, দেড় লাখ ঘরের ক্ষতি তানোরে ডিবি পুলিশ কর্তৃক মাদকসহ দুই ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নে সকল সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসতে হবে : পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী
তানোরে ভোটের প্রচারণা শেষ, চলছে জল্পনা-কল্পনা

তানোরে ভোটের প্রচারণা শেষ, চলছে জল্পনা-কল্পনা

আব্দুস সবুর, তানোর : রাজশাহীর তানোর পৌরসভা নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্প্রীতির মাধ্যমে প্রার্থীদের বিরামহীন প্রচারণা শেষ হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে প্রচারণা শেষে চলছে জল্পনা-কল্পনা।

কিন্তু গতকাল সারাদিন বিশেষ করে মেয়রপ্রার্থীরা পৌর এলাকার মাঠ চুষে বেড়ান। বিকেলের দিকে পৌরসদরে নৌকার বিশাল প্রচারণা মিছিল বের হয়। তবে, এরআগের দিন বৃহস্পতিবার বিকেলে ধানের শীষের পক্ষেও বিশাল প্রচারণা মিছিল বের করা হয়। মূলত দুই দলের মেয়রপ্রার্থীর মধ্যে নৌকা ও ধানের শীষের মধ্যেই হবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই বলে মনে করছেন ভোটারেরা।

কিন্তু বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার কারণে কিছুটা হলেও বেকায়দায় আছেন ধানের শীষের প্রার্থী মেয়র মিজান। কারণ বিগত ২০১৬ সালের নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী ইমরুল হক তাঁর কাছে মাত্র ১৩ ভোটে পরাজিত হন। যার ফলে এবারের নির্বাচনে নৌকার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর চারটি নির্বাচনেই বিএনপির প্রার্থী বিজয়ী হয়। অবশ্য এবার ভোটারদের মাঝে পরিবর্তনের ব্যাপক সাড়া লক্ষ করা গেছে। এজন্য সবাই মনে করছেন বিএনপির দূর্গ হিসেবে পরিচিত তানোর পৌরসভা নিজেদের জন্যই ভাঙ্গতে বসেছে।

এখন শুধু অপেক্ষার প্রহর আগামী রোববার রাত্রি ৯টার মধ্যেই হয়তো শেষ অবসান ঘটবে। কোন ধরনের হানাহানি হুমকি-ধামকি ছাড়াই এবং সব কিছুতেই ছিল চমৎকার পরিবেশ। যে যার মত কওে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা চালিয়েছেন। এখন চলছে নেতাকর্মীদের মাঝে চুলচেরা বিশ্লেষণ ও হিসেব নিকেশ।

এছাড়াও নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরাও শান্তিপূর্ণ ভাবে প্রচারণা চালিয়েছেন। চায়ের আড্ডায় নির্বাচন নিয়ে ছিল তুমুল আলোচনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলেছে প্রার্থীদের লাইভ সম্প্রচার। এক কথাই কোন দিকেই কোন কিছুর কমতি বা ঘাটটি দেখা যায়নি।

জানা গেছে, প্রচারণার শেষ দিন শুক্রবার থেকেই নিরাপত্তার জন্য বিশেষ টহল টিমকে সার্বক্ষণিক দেখা গেছে। টহলে রয়েছেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে বডারগার্ড বিজিবি। এরআগে তৃতীয় ধাপের গত ৩০ জানুয়ারি শনিবার উপজেলার মুন্ডুমালা পৌরসভার শান্তিপূর্ণ নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো।

চতুর্থ ধাপে তানোর পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল ১৪ই ফেব্রুয়ারী রোববার। প্রচার প্রচারণা হয়েছে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ও ভোট গ্রহণও হবে নিরপেক্ষ ভাবে বলেই মনে করছেন পৌরবাসি। কারণ হিসেবে সকলেই বলছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউএনওর একান্ত সচ্ছ প্রচেষ্টার মানসিকতার জন্যই এমন সুন্দর পরিবেশ বিরাজ করছে।

সূত্র জানায়, এনির্বাচনে কাউন্সিলর পদে অনেক তরুণ উদীয়মান প্রার্থী রয়েছেন যারা ভোটের মাঠেও চমক সৃষ্টি করেছেন। পৌরসভার মধ্যে ৪ ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দিকেই নজর থাকে সবার। কারণ এই দুই ওয়ার্ড একেবারেই সদর এলাকা। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজন কাউন্সিলর প্রার্থী থাকলেও ৫ নম্বর ওয়ার্ডে রয়েছেন ৭ জন প্রার্থী।

নয় ওয়ার্ডের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রার্থী ৫ নম্বর ওয়ার্ডেই রয়েছে। ৪ নম্বরে বিএনপিপন্থী বর্তমান কাউন্সিলর মেয়র মিজানের খালাতো ভাই আব্দুল মান্নান উট পাখি নিয়ে লড়ছেন। আছেন ক্ষমতাসীন দলের সাবেক কাউন্সিলর মমিনুল হক মুকুল পানির বোতল প্রতীকে ও গত নির্বাচনে পরাজিত লিয়াকত রয়েছেন পাঞ্জাবী প্রতীকে।

৫ নম্বর ওয়ার্ডে আছেন বর্তমান কাউন্সিলর উট প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল লতিফ মন্ডল, পানির বোতল নিয়ে তরুণ উদীয়মান আফজাল হোসেন, ব্রিজ প্রতীকে আব্দুল সালাম, পাঞ্জাবী প্রতীকের সাবেক কাউন্সিলর রাসেল সরকার উত্তম, টেবিল ল্যাম্প নিয়ে তরুণ প্রার্থী হাবিবুর রহমান, ডালিম প্রতীকে আইনাল, ব্ল্যাকবোর্ড প্রতীকের মুসলেম প্রামানিক।

৬ ওয়ার্ডে রয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর মশিউর রহমান মুরশেদ তাঁর প্রতিক টেবিল ল্যাম্প, উট পাখি প্রতীক নিয়ে ইন্তাজ মোল্লা, পাঞ্জাবী প্রতীক নিয়ে আব্দুল খালেক ও ব্রিজ প্রতীকের সাবেক কাউন্সিলর হারুনুর রশিদ বাচ্চু। এই তিন ওয়ার্ডের বর্তমান নারী কাউন্সিলর পলি বেগম চশমা প্রতীক নিয়ে, জবাফুল নিয়ে গোলেহার নাজনিন ও আনারস প্রতীকের নতুন মুখ আলেয়া বেগম। ১ নম্বর ওয়ার্ডে রয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর তাসির উদ্দিন উটপাখি ও ফারক হোসেন পানির বোতল প্রতীকে লড়ছেন।

২ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর বিএনপিপন্থী মুনসুর সোনার টেবিল ল্যাম্প, তরুণ উদীয়মান বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান উটপাখি প্রতীকের রোকনুজ্জামান জনি, সাবেক কাউন্সিলর পানির বোতল প্রতীক নিয়ে গোলাম রাব্বানী, ডালিম প্রতীক নিয়ে জুয়েল রানা তিনিও একেবারেই তরুণ উদীয়মান।

৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাবেক কাউন্সিলর প্রবীণ ব্যক্তি নাজিম উদ্দিন, পানির বোতল নিয়ে বর্তমান কাউন্সিলর মুরসালেন শেখ, সাবেক কাউন্সিলর বিএনপি নেতা ডালিম প্রতীকের প্রার্থী আবু সাইদ বাবু।
১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সংরক্ষিত আসনের বর্তমান কাউন্সিলর জুলেখা বেগম চশমা, নতুন মুখ ফাতেমা খাতুন টেলিফোন, ফরিদা বিবি বলপেন ও পিয়ারজান আনারস প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে লড়ায় করছেন।

৭ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর উজ্জল হোসেন পানির বোতল, সাবেক কাউন্সিলর বিএনপি নেতা মনজুর রহমান টেবিল ল্যাম্প, নওসাদ ডালিম এবং একেবারেই তরুণ যুবলীগ নেতা আলী হোসেন উটপাখী প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে রয়েছেন। ৮ নম্বরে বর্তমান কাউন্সিলর বিএনপি নেতা টেবিল ল্যাম্প প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল বারী ও সাবেক কাউন্সিলর উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আরব আলী।

৯ নম্বরে বর্তমান কাউন্সিলর শুম্ভুনাথ হলদার পানির বোতল, সাবেক কাউন্সিলর পাঞ্জাবী প্রতীকের মুস্তাফিজুর রহমান বাবু, সাবেক কাউন্সিলর বিএনপি নেতা টেবিল ল্যাম্প প্রতীকের সাইদুর রহমান, ওয়ার্ড বিএনপি নেতা উটপাখি প্রতীকের কোরবান আলী আর ডালিম প্রতীক নিয়ে ওহাব আলী। ৭, ৮ ও ৯ নম্বর সংরক্ষিত আসনের বর্তমান নারী কাউন্সিলর আনারস প্রতীকের মমেনা আহম্মেদ, অটোরিক্সা প্রতীক নিয়ে লাইলী বেগম, বলপেন প্রতীকের রমেছা বেগম, জবাফুল প্রতীকে মুঞ্জুয়ারা ও চশমা প্রতীকের মুসলেমা বিবি।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায়, এই নির্বাচনে ভোটার রয়েছেন ২৪ হাজার ৬৬৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ ১২ হাজার ৩৮ জন ও নারী ১২ হাজার ৬২৯ জন। নয়টি ওয়ার্ডে ১৩টি কেন্দ্রে ৬৮ বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো জানান, ভোট গ্রহণের জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে এবং মডেল নির্বাচন উপহার দেয়া হবে বলেও জানান ইউএনও। আজকের তানোর

 

স্যোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

ads




© All rights reserved © 2021 ajkertanore.com
Developed by- .:: SHUMANBD ::.